ঢাকা বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০১৮


নাসরিনের সাথে আপসেই মুক্তি মিলছে সানির

নাসরিন সুলতানার সাথে আপসেই মুক্তি মিলছে ক্রিকেটার আরাফাত সানির। উভয় পরিবারের সাথে কয়েকদফা আলোচনার পর তারা সমঝোতায় এসেছেন।

সানির আইনজীবী মো. জুয়েল আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আরাফাত সানি ও নাসরিন সুলতানার পরিবারের মধ্যে সানির জামিনের বিষয়ে সমঝোতা হয়েছে। আগামী ১৫ মার্চ তথ্য প্রযুক্ত মামলায় সাইবার ট্রাবুনালে সানির জামিন শুনানির জন্য দিন ধার্য রযেছে। ওই দিন আরাফাত সানি ও নাসরিন উভয়ে আদালতে উপস্থিত থাকবেন। আশা করছি সানি জামিন পাবেন।

সানির মামা আবু সাইদ  বলেন, সমঝোতা হয়েছে। তবে এটা নাসরিনকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ দিয়ে না তাকে স্ত্রী হিসেবে মেনে নিয়ে আপোস হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে সানি। জেল থেকে বের হলেই তা চূড়ান্ত হবে।

একই কথা বলেন নাসরিনের মামা রমিজ উদ্দিন পলু।

এর আগে, গত ৯ মার্চ নাসরিন সুলতানার দায়ের করা নারী নির্যাতন মামলায় জামিন পান সানি। জামিন শুনানিতে সানির আইনজীবী জুয়েল আহম্মেদ আদালতে জানান, উভয় পরিবারের মধ্য আপস হয়েছে। মামলার বাদিনী আদালতে উপস্থিত আছেন। জামিনে তার আপত্তি  নেই। নাসরিন ও তার মামা রমিজ উদ্দিন পলু বিষয়টি আদালতে স্বীকার করলে আদালত নাসরিনের জিম্মায় এক মাসের জন্য সানির জামিন মঞ্জুর করেন। এ সময় আদালত বলেন, এক মাসের মধ্য তারা চূড়ান্ত সমঝোতায় পৌছলে আগামী ১০ এপ্রিল নাসরিন  আদালত এসে মামলা প্রত্যাহার করে নিবেন। ১০ এপ্রিলের পর নাসরিন চাইলে সানির জামিন বাতিল করা হবে।

এর আগে, নাসরিন জানিয়েছিলেন সানির পরিবারের পক্ষ থেকে নাসরিনের পরিবারকে আপসের জন্য বলা হয়েছে। তারা নাসরিনকে যথাযথ মর্যাদা দিতেও সম্মত হয়েছে। এজন্য তাকে আগে মামলা প্রত্যাহার করতে বলা হয়েছে। নাসরিন তাদেরকে জানিয়েছেন সে আইনজীবীর উপস্থিতিতে আদালতের মাধ্যমে বিষয়টি সমঝোতা করতে চান।

এ প্রসঙ্গে নাসরিনের আইনজীবী নাসিম জাহান রুবি জানান, নাসরিন ও সানির পরিবার ঘরোয়াভাবে আপস মীমাংসা করেছে। নাসরিন মামলার ফাইল নিয়ে গেছে। তাদের মধ্যে কি বিষয়ে আপস হয়েছে আমরা কিছু জানিনা।

গত ২৪ জানুয়ারি নাসরিন তথ্য প্রযুক্তি আইনের মামলা করেন আরাফাত সানির বিরুদ্ধে। এরপর সানির বিরুদ্ধে আরো ২ টি মামলা করেন নাসরিন। একটি যৌতুক আইনের ৪ ধারায়। আরেকটি নারী নির্যাতন আইনে।

আরো খবর পড়ুন

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Print this page