ঢাকা শুক্রবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৭


রমেকে এমবিবিএস ফাইনালে ফেল ৫৮, আত্মাহুতির হুমকি

রংপুর মেডিকেল কলেজের (রমেক) এবারের এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষায় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকসহ ৫৮ জন শিক্ষার্থী ফেল করেছেন। পাস করিয়ে দেওয়ার দাবিতে অধ্যক্ষের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করা শিক্ষার্থীরা প্রয়োজনে আত্মাহুতি দেবেন বলে হুমকি দিচ্ছেন।

মঙ্গলবার সকাল থেকে তারা অবস্থান করছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আন্দোলনকারীরা বলছেন, দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত সেখানে তারা অবস্থান করবেন। প্রয়োজনে তারা গায়ে পেট্রল ঢেলে আত্মাহুতি দেবেন।

রংপুর মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাসুদ পারভেজ ও সাধারণ সম্পাদক গৌরাঙ্গ চন্দ্র সাহা দাবি করেন,  ফল ঘোষণার সময় প্রথমে তাদের পাস দেখানো হলেও পরে আবার  ৫৮ জন শিক্ষার্থীকে ফেল দেখানো হয়। পাস দেখানো হয়েছে ১৪৪ জন শিক্ষার্থীকে।

জানা যায় এবার এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষায় রংপুর মেডিকেলে কলেজে ২১২ জন শিক্ষার্থী  অংশ নিয়েছিলেন।

রমেক ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দাবি, তারা আসলে পাস করেছেন কিন্তু এখন তাদের ফেল দেখানো হচ্ছে। সে কারণে তাদের সবাকেই পাস করিয়ে ফলাফল সংশোধন না করা পর্যন্ত তারা অবস্থান ধর্মঘট করবেন। দাবি মানা না হলে তারা সবাই নিজের শরীরে পেট্রল ঢেলে আত্মাহুতি দেবেন বলে ঘোষণা দেন।

এ ব্যাপারে মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ  ডা. অনিমেষ মজুমদারের বক্তব্য জানতে তার চেম্বারে গেলে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে এ ব্যাপারে কোনো কথা বলবেন না বলে জানিয়ে দেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন শিক্ষক জানান, অকৃতকার‌্য শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদক ছাড়াও বিভিন্ন পদের নেতাকর্মী আছেন।  তিনি বলেন, ‘লেখাপড়া ঠিকমতো না করলে ফেল করবে, এটাই স্বাভাবিক।’ তাছাড়া ফাইনাল পরীক্ষা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে হয়, তা্ই তাদের (রমেক) করণীয় কিছুই নেই বলে জানান তিনি।

এদিকে উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় কলেজে বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

রংপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ বি এম জাহিদুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে অধ্যক্ষ স্যার সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলছেন। আশা করছি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসবে

আরো খবর পড়ুন

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Print this page