ঢাকা শনিবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৭


ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রক্সি দিতে এসে আটক ৩

এম.এইচ.কবীর,ইবি প্রতিনিধি:ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষা বর্ষে (স্নাতক) প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে এসে ধরা পরে ৩ জন। ভর্তি পরীক্ষার তৃতীয় দিন ” এইচ” ইউনিটের বদলী পরীক্ষা দিতে এসে আটক হয়েছে ইন্দ্রজিৎ কুমার নামের এক শিক্ষার্থী।রবিবার ৩রা ডিসেম্বর আইন ও শরীয়াহ অনুষদের অধীনে ‘এইচ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ২য় শিফটে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান ভবনে ১২৫ নং কক্ষ থেকে তাকে আটক করা হয়।ওই ঘটানায় ইন্দ্রজিৎকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

অপরদিকে আজ সোমবার পরীক্ষার চতুর্থ দিনে ‘বি’ ইউনিটের ২য় শিফটের পরীক্ষা শেষে দুই ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। তারা ৪০ হাজার টাকার চুক্তিতে ইবিতে ভর্তিচ্ছুদের বদলী পরীক্ষা দিতে আসছিল।

 প্রক্সিদাতা কাউসার আলী ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী। অপরজন বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজের অর্থনীতি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র মোঃ আলম। তারা রিফাত শেখ ও সোহানুর রহমানের হয়ে বদলী ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ায় ধরা খেয়েছে।

প্রক্টর অফিসে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করায় জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী রকি, হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের লাল চাঁদ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী মাসুদ ওই জালিয়াতি চক্রের সঙ্গে জড়িত।

কুষ্টিয়া জেলা ডিসি অফিসের উপ-কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইমলাম কমল বলেন,বদলী পরীক্ষায় দিতে আসায় কাওছার আলীকে একছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৪০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এবং মোঃআলমকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান বলেন,জালিয়াতি চক্রে যেই জড়িত থাকুক না কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়ে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।

আরো খবর পড়ুন

Share on Facebook81Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Print this page